দিনাজপুরনিউজ২৪ ডটকমের ব্লগসাইটে আপনাকে স্বাগতম!

অপরাধ ও দুর্নীতি

প্রকাশঃ ০৭ এপ্রিল, ২০১৯

অপরাধ ও দুর্নীতি

ঘোড়াঘাটে টেন্ডার ছাড়াই রাস্তার সব প্রাচীন গাছ কর্তন করে লোপাট-কিছু জব্দ হলেও মামলা হয়নি এখনো!

দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলার সীমানা জুরে রাস্তার দু'পাশ দিয়ে থাকা বিশাল বিশাল আকৃতির সব প্রাচীন গাছ টেন্ডার ছাড়াই কেটে সাফ করতে গিয়ে উক্ত কাঠুরিয়া সামছুল, রবিউল, বদের, রুবেল দের কাগজের কি বৈধ্যতা আছে জানতে চেয়ে তা দেখবার তাগিদ দিলে তারা কাগজ দেখাতে ব্যার্থ হয় তখন মোবাইল ফোনে ইউএনও কে অবগত করে উপজেলা ফরেষ্ট অফিসার সহ দুইজন সরকারি লোক গাছ গুলো জব্দ করে এবং সিজার লিষ্ট করে ইউএনও অফিসে জমা দেয়।

কিন্ত আজ ৮দিনের মতো অতিবাহিত হলেও এই গাছ গুলোর মালিক পাচ্ছেননা ঘোড়াঘাট উপজেলার ইউএনও! তিনি বলছেন এগুলো আমার গাছ নয়! জেলা পরিষদ বলছে আমাদের গাছ নয়! সিএমবি বলছে আমাদের গাছ নয়! বন বিভাগ তাদের গাছ দাবী করলেও লোডের কাগজে গাছ না তুলেই ৭বছরের সব গাছের সাথে মুখের জোরে শতশত বিশাল আকৃতির প্রাচীন গাছ গুলো বিক্রয় করে উক্ত কাঠুরিয়ার পক্ষে কথা বলছে চোরকাই রেন্জ কর্মকর্তা নিশিকান্ত বাবু। জনতার কাগজ দেখতে চাওয়ায় আসল তথ্য বেরি আসা শুরু হয়ছে ফরেষ্ট অফিসার সামছুল, রবিউল, বদের, রুবেল দের সহযোগিতা নিয়ে রাতা রাতি লাল রং দিয়ে নাম্বারিং করা গাছ গুলোর উপরে আবার সবুজ কালি দ্বারা নাম্বারিং করে J লিখে জেলা পরিষদ বোঝানো হয়েছে কিছু দারিয়ে থাকা গাছ গুলোকে। জনগনের দাবী যদি রাতা রাতি রং বদলী করে গাছ বনবিভাগ থেকে জেলা পরিষদে রুপ নেয় তবে যে গাছ গুলো কেটে খামালে রাখা আছে সে গুলো কি ভাবে বন বিভাগের গাছ হয়ে গেলো? 

এখানে দিন দুপুরে সরকারী সব প্রাচীন বৃক্ষ লোপাট হচ্ছে আর রেন্জ কর্মকর্তা বলছেন সব ঠিক আছে! অথচ কিছুই ঠিকনাই যা সরেজমিনের কাগজ ই বলে দিচ্ছে তারা সকলে মিলে মিশে কি ভাবে সরকারী গাছ গুলো দিনদুপুরে লোপাট করতে ব্যাস্ত। এই যাবৎ অর্থের বিনিময়ে মুখ বন্ধ করা হয়েছে বেশিরভাগ কর্তা আর লোকজনের। তাছাড়া চলছে দলীয় এক সন্ত্রাসী বাহীনির গোর্ডফাদার একাধীক মামলার দাগী আসামী, মাদক জগতের কিং দ্বারা সাধারন প্রতিবাদী জনগনকে ভয়ভীতি দেখিয়ে চুপ রাখবার পায়তারা। উক্ত কাঠুরিয়া সামছুল, রবিউল যেনো খোর পোষ দিয়ে সকল সন্ত্রাস বাহীনিকে নিজেদের লোক বানীয়ে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে আইনকে বৃদ্ধা আঙ্গুল প্রর্দশন করার মধ্যে দিয়ে। জনগনের দাবী উর্দ্ধতন কর্মকর্তাগন এই বিষয়টি আমলে নিয়ে তদন্ত সাপেক্ষে যেনো সঠিক ঘটনা আর অপরাধী ব্যাক্তিদের খুজে বের করে শাস্তির ব্যাবস্থা করে। এই বিষয়ে সরকারের সংশ্লিষ্ট উচ্চপদস্থ কর্তার আশু হোস্তক্ষেপ সহ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা'র সু-দৃষ্টি কামনা করেছেন।

ব্লগার md iftekhar ahmed এর অন্যান্য পোস্টঃ
আপনার পছন্দের তালিকায় আরও থাকতে পারেঃ
0 মন্তব্য
আপনার মতামত দিন
বাংলা বর্ণমালার বর্ণ কোনটিঃ
Hit enter to search or ESC to close
হ্যালো, আমার নাম

md iftekhar ahmed