দিনাজপুরনিউজ২৪ ডটকমের ব্লগসাইটে আপনাকে স্বাগতম!

আন্তর্জাতিক

প্রকাশঃ ০৭ এপ্রিল, ২০১৯

আন্তর্জাতিক

ঘোড়াঘাটে নিম্নমানের ও খাওয়ার অনুপযোগী চাল ভিজিডি'র কার্ডধারীদের মাঝে বিতরন- ইউএনও বরাবরে লেখিত অভিযোগ দিলেন সাংবাদিক

ঘোড়াঘাট থেকে বাবুঃ  দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলার সদর ৪নং ইউনিয়ন এ গত ০১/০৪/১৯ইং তারিখ রোজ সোমবার ভিজিডি কার্ডধারীদের মাঝে ৯০ কেজি করে চাল বিতরন করা হয়। উক্ত চাল নিম্নমানের এবং খাওয়ার অনুপযোগী জানতে পেরে উপজেলার কয়েকজন সাংবাদিক ইউনিয়ন পরিষদ এর চাল বিতরনের স্থানে গিয়ে দেখতে পান যে চাল বিতরন করা হচ্ছে তা অতি নিম্নমানের এবং খাওয়ার অনুপযোগী তাই ততক্ষনাৎ উক্ত সাংবাদিক গন চাল বিতরনের স্থানে সিনিয়র হিসেবে দায়িত্বে থাকা উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তাকে চাল গুলো দেখিয়ে নিম্নমানের এবং খাওয়ার অনুপযোগী চাল বিতরন বন্ধ করে উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা কে খবরটি জানাবার জন্য অনুরোধ করেন এবং কার্ড ধারিদের সুষ্ঠ্য সমাধানের পরে চাল গ্রহনের জন্য অনুরোধ করেন। উক্ত সময় নিম্নমানের এবং খাওয়ার অনুপযোগী চাউল বিতরনের দৃশ্য ফেসবুকের লাইভে প্রচার করেন সাংবাদিক বাবু যা প্রমান হিসেবে সংরক্ষনের জন্য তিনি করে রাখেন। প্রায় ৩০-৪০ মিনিট পরে উক্ত স্থানে পুলিশ ফোর্স সহ আসেন ঘোড়াঘাট উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মোছাঃ ওয়াহিদা খানম সঙ্গিয় পুলিশ ফোর্স সহ তিনি পৌচ্ছাবার পরে ভালো ভাবে চাল গুলো দেখেন ও চাল গুলো নিম্নমানের এবং খাওয়ার অনুপযোগী কি না সেই বিষয়ে নিশ্চিত হতে উপজেলার হরিপাড়া ওসি এলএসডি কে চাল বিতরনের স্থানে আসতে বলে কিছুক্ষন পরে তিনি আসলে চাল গুলো নিয়ে ঘোড়াঘাট উপজেলার ইউএনও তাকে দেখিয়ে জানতে চান যে এই চাল গুলো সরকার ক্রয় করে কি না, চাল গুলো নিম্নমানের কি না, এসব চাল খাওয়ার উপযোগী কিনা পরে জনগনের এবং সাংবাদিক দয়ের সম্মুখেই হরিপাড়া ওসি এলএসডি ইউএনও কে জানান এই চাউল গুলো সরকারী ভাবে ক্রয় করা হয়না, এগুলো নিম্নমানের এবং এসব চাল খাওয়ার অনুপযোগী। তখন ঘোড়াঘাট উপজেলার ইউএনও গোডাউন হতে এই চাউলের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে কিনা চেয়ারম্যান তৌহিদুল ইসলামের নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন উক্ত সাংবাদিকগন তার উপস্থিতিতে তারই সম্মুখে চাল গুলোর নমুনা নিয়েছেন।

চেয়ারম্যান এর নিকট জানাবার পরে সাংবাদিকদের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে লেখিত অভিযোগ করতে বলেন। পরের দিন ইউএনও বরাবরে সবার পক্ষে একজন সাংবাদিক লেখিত ভাবে অভিযোগ দিয়েছেন বলে যানা গেছে। এলাকাবাসী সহ উক্ত চেয়ারম্যানের দাবী নিম্নমানের ও খাওয়ার অনুপযোগী এসব চাল হরিপাড়া এলএসডি গোডাউন হতে এসেছে তবে ওসি এলএসডি তা অস্বিকার করায় উক্ত গোডাউন চেক করবার জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কে মৌখিক ভাবে অনুরোধ করা হয়েছে।

 তবে কনো আশুব্যাবস্থা গ্রহনের সংবাদ এখনো পাওয়া যায়নি।

একজন সাংবাদিক লিখিত ভাবে অভিযোগ করবার পরেও এব্যাপারে তদন্তে নামেন নি কেউ। ঘটনার পর দিন তিনটি কার্গোতে করে উক্ত গোডাউন হতে চাল গিয়েছে অন্যত্র তবে সে চাল উক্ত নিম্নমানের আর খাবার অনুপোযগি চাল'ই হতে পারে বলে ধারনা করছেন এই উক্ত চালগুলো বিতরনের সময় থাকা অভিযোগ কারীী সাংবাদিক গন।

ব্লগার md iftekhar ahmed এর অন্যান্য পোস্টঃ
আপনার পছন্দের তালিকায় আরও থাকতে পারেঃ
0 মন্তব্য
আপনার মতামত দিন
বাংলা বর্ণমালার তৃতীয় বর্ণ কোনটিঃ
Hit enter to search or ESC to close
হ্যালো, আমার নাম

md iftekhar ahmed