দিনাজপুরনিউজ২৪ ডটকমের ব্লগসাইটে আপনাকে স্বাগতম!

প্রকাশঃ ২৩ জুলাই, ২০১৯

ট্যালেন্ট প্রি- ক্যাডেট স্কুলের সৃষ্টি ও সফলতা।

"মহৎ উদ্দেশ্য,  সৎ নিয়ত, প্রবল ইচ্ছা, কঠোর পরিশ্রম ও সুস্থ্য মেধায় পারে ভালো কিছু উপহার দিতে" আমি লেখাটি লেখার পূর্বেই সকল পাঠক অনুরোধ করবো কলামটি শেষ পর্যন্ত পড়ার পর যদি কোন মন্তব্য থাকে করবেন তার আগে নয়। আমি আজ ট্যালেন্ট প্রি- ক্যাডেট স্কুল নিয়ে কিছু কথা সকল শিক্ষানুরাগী ব্যাক্তিদের জন্য তুলে ধরতে চাই।
ট্যালেন্ট প্রি- ক্যাডেট স্কুলটি স্থাপিত হওয়া পূর্বে এটি ট্যালেন্ট কোচিং সেন্টার নামে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিলো ২০০৬ সালে। সেখানে আমি ও শিক্ষাকতা করেছি। আমার চাকুরী হওয়াই ঘোড়াঘাটের বাহিরে চলে যেতে হয়। সেখানে আমার বন্ধুৃ মোঃ আতোয়ার রহমান ও শিক্ষাকতার পাশাপাশি পরিচালকের দায়িত্ব পালন করেন। তার সুচিন্তার কারনেই ট্যালেন্ট কোচিং সেন্টারটি আজ ট্যালেন্ট প্রি- ক্যাডেট স্কুলে রুপান্তরিত হয়েছে। সাধুবাদ জানাই আমার বন্ধু মোঃ আতোয়ার রহমান কে এমন মহৎ উদ্দোগ্য গ্রহন করার জন্য।
২০০৮ সালে ঘোড়াঘাট পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের দক্ষিন নয়াপাড়ার মহিলা কলেজ মোড়ে প্রতিষ্ঠাতা আলহাজ্ব জনাব মোঃ আরব আলী দেওয়ান ট্যালেন্ট প্রি-ক্যাডেট স্কুলটি প্রতিষ্ঠিত করেন। জনাব দেওয়ান ভেবেছিলেন অত্র ওয়ার্ডে কোন সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় নেই- এই এলাকার ছোট ছোট কোমল মতি শিশুদের মহাসড়ক পার হয়ে ঘোড়াঘাট পুরাতন বাজার যেতে হয় পড়া লেখার জন্য। অভিভাবকগন সব সময় তাদের ছেলে মেয়েদের জন্য চিন্তায় থাকতেন। আর যায় হোক প্রথমত সেই চিন্তা থেকে অভিভাবকগন মুক্তি পেয়েছেন। 
ট্যালেন্ট প্রি- ক্যাডেট স্কুলটি যখন পথচলা শুরু করে তখন অনেক সমালোচক নানান সমালোচনাই করেছেন। কিন্তু সেই সমালোচনা কি কোন কিছুর পথচলা থেমে রাখতে পারে? না পারে না। যদি মহৎ উদ্দেশ্য নিয়ে কোন কিছু করার ইচ্ছা থাকে তাহলে পৃথিবীর কোন শক্তিই সেই কাজকে ধমিয়ে রাখতে পারেনি এবং কোন দিন পারবেও না। ট্যালেন্ট প্রি- ক্যাডেট স্কুলটি তার একটি জলন্ত উদাহরন মাত্র। শত প্রতিকুলতার মধ্যেও এই স্কুলটি যে সুনাম অর্জন করেছে তা ভাষায় প্রকাশ মতো যোগ্যতা আমার আছে কি না আমি জানিনা। তবে সাদাকে সাদা এবং কালো কে কালো বলতে আমি কখনো দ্বিধাবোধ করিনা। 
আমি নিজেকে অনেক ধন্য মনে করি কারন আমার বড় মেয়ের পড়া লেখা শুরু এই স্কুলেই। আজ সে এই স্কুলের ৭ম শ্রেনীর ছাত্রী। ৫ম শ্রেনীতে আমার বড় মেয়ে এই স্কুল হতে সাধারন গ্রেডে বৃত্তি পেয়েছিলো। তার এই সফলতার জন্য আমি অত্র স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা, পরিচালক সহ সকল শিক্ষক/শিক্ষিকাদের জানাই অসংখ্য ধন্যবাদ। বড় মেয়ের এমন সফলতায় মুগ্ধ হয়ে ছোট মেয়েকেও এই স্কুলে ভর্তি করি। ছোট মেয়ে এখন ২য় শ্রেনীতে পড়ে। 
প্রতিষ্ঠাতা, পরিচালক, শিক্ষক/শিক্ষিকাদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কারনে স্কুলটি সফল ভাবে সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে এবং বর্তমানে ঘোড়াঘাট উপজেলার মধ্যে সেরা স্কুল। আমার জানামতে প্রতি বছরই উপজেলা পর্যায়ে ২৬শে মার্চ এবং ১৬ই ডিসেম্ভর এ ডিসপ্লেতে ১ম স্থান অধিকার অর্জন করে। এই স্কুলের এখন ছাত্র/ছাত্রীর সংখ্যা সব মিলিয়ে প্রায় ৪০০ জন। ভালো শিক্ষাদানের কারনে স্কুলটিতে পলাশবাড়ী ও গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার অনেক ছাত্র/ছাত্রী এখানে পড়া লেখা করছেন।
সকল অভিভাবকই চায় তার সন্তান সু শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে সমাজে বড় মাপের ভালো মানুষ হোক। একটি পরিবার, একটি সমাজ, একটি দেশের উন্নয়ন করতে হলে প্রথমেই দরকার সু শিক্ষিত জাতী তৈরি করা। আমার মনে হয় ট্যালেন্ট প্রি- ক্যাডেট স্কুলের সকলেই সেই সু শিক্ষিত জাতী গঠনের ভূমিকা পালন করছে। আপনাদের সকলে জানার জন্য স্কুলটি কিছু তথ্য নিম্নে তুলে ধরছি।
প্রতিষ্ঠানের নামঃ- ট্যালেন্ট প্রি- ক্যাডেট স্কুল।(প্লে থেকে ৮ম শ্রেনী পর্যন্ত)
প্রতিষ্ঠাকালঃ-২০০৮ ইং সাল।
প্রতিষ্ঠাতাঃ- আলহাজ্ব মোঃ আরব আলী দেওয়ান।
পরিচালকঃ- মোঃ আতোয়ার রহমান।

বর্তমানে স্টাফ সংখ্যা-৩৫ জন
ঠিকানাঃ- মহিলা কলেজ মোড়, দক্ষিন নয়াপাড়া, ঘোড়াঘাট পৌরসভা, ঘোড়াঘাট, দিনাজপুর।
১ম সমাপনী পরীক্ষায় অংশ গ্রহন -২০১৩ সালে।
সন
অংশগ্রহনকারী
এ+ প্রাপ্ত
 পাশের হার
ট্যালেন্টপুলে বৃত্তিপ্রাপ্ত
সাধারনগ্রেডে বৃত্তিপ্রাপ্ত
মোট বৃত্তিপ্রাপ্ত সংখ্যা

২০১৩
৫জন
১জন
১০০%
০জন
৩জন
৩জন

২০১৪
৯জন
৭জন
১০০%
১জন
৩জন
৪জন

২০১৫
১১জন
১১জন
১০০%
০জন
৭জন
৭জন

২০১৬
১৪জন
১৪জন
১০০%
১জন
৬জন
৭জন

২০১৭
২০জন
১৯জন
১০০%
৬জন
৫জন
১১জন

২০১৮
২৫জন
২৫জন
১০০%
১০জন
৭জন
১৭জন

ফলাফলের চিত্রটি দেখলেই বুঝা যায় স্কুলটি কেমন। কথায় আছে না- বৃক্ষ তোমার নাম কি? ফলেই পরিচয়। আমার মনে হয়না আপনাদের আর কিছু বুঝার দরকার আছে। যেহেতু স্কুলটি সুনামের সহিত সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে এবং আপনার, আমার এবং আমাদের সকলের ছোট ছোট কোমল মতি শিশুরা এখান থেকে সু শিক্ষায় শিক্ষিত হচ্ছে- তাই আসুন সকলে মিলে স্কুলটিকে আরো সুনাম অর্জনের জন্য সার্বিক সহযোগিতা করি। আল্লাহ আমাদের সকলে মঙ্গল করুক। আমিন
মোঃ জিয়াউর রহমান
একজন অভিভাবক।

শেয়ার করুনঃ
ব্লগার MD.ZIAUR RAHMAN এর অন্যান্য পোস্টঃ
আপনার পছন্দের তালিকায় আরও থাকতে পারেঃ
0 মন্তব্য
আপনার মতামত দিন
বাংলা বর্ণমালার পঞ্চমতম বর্ণ কোনটিঃ
Hit enter to search or ESC to close
হ্যালো, আমার নাম

MD.ZIAUR RAHMAN